বৃষ্টিভেজা ময়দানে হেঁটেছিলাম,

পাশাপাশি দুজনে

মাঝরাতে কৌঁশি কানাড়া, টোড়ি,

পাশাপাশি দুজনে।

সত্যজিৎ, ঋত্বিক, মৃণাল দেখে

ফিরেছি চিনেবাদাম হাতে,

বইপাড়া, যাদুঘর, আকাদেমির নাটক

ব্রিটিশ কাউন্সিল বা জু-তে

হাতে হাত রাখিনি, চোখে চোখ,

তবু সব কথা রেখেছিলে।

কথা তো বলেনি ঠোঁট

বলেছে হৃদয়, চোখ...

উত্তর লেখা হয়ে রয়েছে সব

গভীর গোপন বুকে

অনুভবে গান, অনুভবে প্রাণ

ভালোবাসা ভালোবাসা বলে লোকে।

সব কথা রেখেছিলে, অথবা

রাখোনি ওটুকু, আরো বেশি ভেবেছিলে

জ্বর ছিল, ঘাম ছিল, পথশ্রম, তবু

এক পায়ে আপেক্ষা করেছিলে।

দমকা কালবৈশাখী ঝড়

উথালপাথাল ঢেউ...

ছেলেবেলার শিরশিরে ভয়

পরীক্ষার আগে যেমন তেমন!

না চেনা অসুখ, না জানা কামড়

বোবা বিহ্বলতা, ঘিরে থাকা ঘোর-

আকুলি বিকুলি যন্ত্রণা,

হতচকিত, অসহায় বিস্ময়

কী কষ্টে ভাষাহীন চোখ তোমার!

কথা তুমি রাখোনি -

কথা তুমি রাখোনি

কথা তুমি... ।

n সংঘমিত্রা, ৩রা মে, ২০০৮

বন্ধুর পথ জানিনি কখনও
বন্ধুর পথে হাঁটিনি
তবুও সে পথ জীবনে এলো।
স্কুলের পরীক্ষায় কঠিন প্রশ্নের উত্তর লিখতে বেছে নিতাম
সবার থেকে আলাদা হবে ব’লে।
তাই কি এবারও বেরিয়ে এলাম কঠিন পথের আকর্ষণে!

বন্ধুর পথের চড়াই উতরাই
সাহস নিয়ে হেঁটেছি, পেয়েছি শক্তি
পথের কষ্টের কথা ভুলে গেছি
মনে আছে শুধু পার হওয়ার আনন্দ।

পেলব জীবন টানেনি কখনও
টেনেছে কোনির লড়াই
তাই প্রাণ ভ’রে দম নিয়ে নিয়ে
উঠেছি জীবনের চড়াই।

বন্ধুর পথ দুর্গম হয়নি
ছিল সে যখন পাশে
পথের পাশের ফুলেরা সব
রডোডেনড্রন হ’য়ে হাসে।

হাঁফ ধ’রে আসা বন্ধুর পথে
নিয়েছি পভীর নিশ্বাস –
হাত বাড়ালেই পেয়েছি যে তার
বলিষ্ঠ হাতের আশ্বাস।

বন্ধুর পথে হেটেছি অনেক
পিছিয়ে যাইনি ভয়ে
আজ মনে হয় আরো চড়াই
দম যাবে না তো ফুরিয়ে?

সাথী আজ সাথে তো নেই
সামনে আছে দুস্তর পথ –
শ্রান্ত হয়ে পড়ে যদি যাই
কোথা পাব আর দৃঢ় সে হাত?

কারা পড়ছে এই ব্লগ

Tuesday, July 29, 2014

ফেলে আসা দিন

সংঘমিত্রা নাথ

ফেলে আসা দিন স্মৃতির দরিয়া
বেয়ে চলি আজ উজানের খেয়া,
ভেসে যায় দিন,ভেসে যায় মুখ
কচি কচি মেয়েদের ঝলমলে চোখ ;
চুলে বেণী, মুখে হাসি সদা চঞ্চল
সবুজ স্কার্ট,সাদা শার্টএ মেয়েদের দল।

জনা,কৌশিকা,দেবারতি,পড়া  বল দেখি?
আলপনা দেবে কে? কেন,ছুটি?
খেলার মাঠে কে ভাল দৌড়ায়?
কারা যেন সরস্বতী ঠাকুর সাজায়?
ছুটি বসে আল্পনা আঁকে সন্ধে অবধি
শুভ্রা,ব্রততী রঙ ভরে দেয় ফুলের পাপড়ি।

কে কে ভাল গান গাও এসো  ফাংশানে
নাচ জানা মেয়েদের ডাকোনি এখানে?
রিহার্সালে কিন্ত চলবে না ফাঁকি,
তাহলে এনুয়াল ফাংশানই মাটি।
নিবেদিতা, পাপিয়া চুপচাপ কেন?
সুপর্ণা, শায়রী আসেনি বুঝি আজও।

সাতাশ বছর পর তোরা মিলেছিস  আবার
আমার হয়েছে সময় স্কুল ছেড়ে  যাবার।
তোদের দেখে আমি আজ আত্মহারা অতি,
তবু কাঁদে মন, কোথায় অনসূয়া, দেবারতি?

No comments:

Post a Comment